বিশ্বকাপে কেউ করোনা আক্রান্ত হলে কী হবে?

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে প্রথমবারের মতো বৈশ্বিক আসর আয়োজন করতে চলেছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি। আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলেছে ১৬ দলের আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে ভারতের বদলে ওমান ও আরব আমিরাতে হবে এবারের বিশ্বকাপ।

প্রথম রাউন্ডের ম্যাচগুলো হবে ওমানে। পরে সুপার টুয়েলভ ও নকআউট পর্ব খেলা হবে আমিরাতে। দেশটির ৯৪ শতাংশ মানুষ অন্তত এক ডোজ করোনার টিকা নিয়েছেন। তবু ১৬ দেশের অংশগ্রহণে চার ভেন্যুতে বিশ্বকাপ আয়োজন খুবই জটিল একটি প্রক্রিয়া হিসেবেই মানছেন আইসিসির বায়ো সেফটি বিভাগের প্রধান অ্যালেক্স মার্শাল।

কেননা প্রায় মাসখানের লম্বা আসরে করোনা সংক্রান্ত নানান সমস্যাই দেখা যেতে পারে। সেসব বিষয়ে আইসিসি কী পদক্ষেপ নিতে পারে তা পরিষ্কার করে জানিয়েছেন মার্শাল। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিবৃতিতে নানান প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন তিনি। উল্লেখযোগ্য বিষয়গুলো নিচে তুলে ধরা হলো:

বায়ো বাবলের মধ্যে কেউ করোনা পজিটিভ হলে কী হবে?
– বায়ো বাবলের মধ্যে কেউ যদি পজিটিভ তবে তাকে ১০ দিনের আইসোলেশনে থাকবে। সেই ব্যক্তি উপসর্গহীন হলেও এই নিয়ম কার্যকর থাকবে।

পজিটিভ হওয়া ব্যক্তির কাছাকাছি সংস্পর্শে থাকাদের কী হবে?
– কাছাকাছি সংস্পর্শে থাকা ব্যক্তি বলতে ধরা হবে, মাস্ক ছাড়া পজিটিভ শনাক্ত হওয়া ব্যক্তির সঙ্গে অন্তত ১৫ মিনিট থাকা। এমন ব্যক্তিদের ৬ দিন আইসলেশনে থাকতে হবে। এছাড়া মাস্ক পরে কেউ কাছাকাছি থাকলে তাকে ২৪ ঘণ্টার আইসোলেশন করতে হবে। টেস্ট করে বাইরে বের হতে পারবেন তিনি।

যেকোনো স্ক্যান অথবা চিকিৎসার জন্য কোনো খেলোয়াড়কে বায়ো বাবল ছাড়তে হলে কী হবে?
– খেলোয়াড়দের এমন সব পরিস্থিতির জন্য সুনির্দিষ্ট বায়ো সিকিউর হাসপাতাল ও বিস্তারিত প্রটোকল রাখা হয়েছে। যাতে করে বাবলের নিরাপত্তা এবং খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা যায়।

কেউ বায়ো বাবলের নিয়মকানুন ভঙ্গ করলে কী হবে?
– এ বিষয়ে কোনো পরিষ্কার গাইডলাইন দেয়া হয়নি এখনও। তবে জানানো হয়েছে প্রতিটি টিম ম্যানেজম্যান্টকে এ বিষয়টি অনেক গুরুত্ব দিয়ে দেখতে হবে। তবে অ্যালেক্স মার্শাল আশাবাদী, কোনো দলের কোনো খেলোয়াড় বায়ো বাবলের নিরাপত্তা নষ্ট করবেন না।

টুর্নামেন্টের বায়ো বাবলে কি খেলোয়াড়দের পরিবারও থাকতে পারবে?
– পরিবারের ন্যুনতম সংখ্যক সদস্যরা থাকতে পারবেন। তবে তাদের প্রত্যেককে পূর্ণাঙ্গ বায়ো বাবল প্রটোকল মেনে চলতে হে।

বিশ্বকাপের দর্শকদের কি দুই ডোজ টিকা নেয়া থাকতে হবে?
– ওমান ও আবুধাবিতে মাঠে বসে খেলা দেখার জন্য দুই ডোজ ভ্যাকসিন নেয়া থাকতে হবে। পাশাপাশি মাঠে অবশ্যই মাস্ক পরে থাকতে হবে। খেলোয়াড়দের সঙ্গে কোনো প্রকার সংযোগ করতে পারবেন না দর্শকরা।