নরসিংদীতে শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মবার্ষিকীতে আলোচনা ও দোয়া অনুষ্ঠিত

আশিকুর রহমান : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫ তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়।

 

২৮ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় নরসিংদী শহরস্থ স্বাধীনতা চত্বরে নরসিংদী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও সদর-১ আসন থেকে তিনবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য লে. কর্ণেল অব. মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম হিরু ( বীর প্রতীক) এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে পাশ্ববর্তী ইউনিয়ও শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ড গুলো থেকে বিভিন্ন প্লেকার্ড ও ব্যান্ডপার্টি নিয়ে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে আসতে থাকা সমাবেশটি মহাসমাবেশ রুপ নেয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী রায়পুরা- ৫ থেকে ছয়বার নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু। উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি রাজিউদ্দিন (এমপি) বলেন :- আজকে আমার ছোট ভাই নজরুল ইসলাম হিরু (বীর প্রতীক) এর আমন্ত্রণে আমি আবার নরসিংদীতে আসি।

 

দীর্ঘ ১০ বছর পর। ৭৫ তম শুভ জন্মদিনে নেত্রীকে নরসিংদীবাসীর পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাই। ঠিক তেমনি একদিন নেত্রী যখন বিরুদ্ধী দলে ছিল, তখন তার জন্মদিন পালন করার কেউ ছিলনা। সেদিন আমি ও প্রয়াত মেয়র হানিফ জন্মদিন পালন করেছিলাম। এ দশ বছর নরসিংদীতে আমার অনুপস্থিতিতে নরসিংদীর রাজনীতি ছাড়কার করে দিয়েছে। লুটের রাজত্ব বানিয়ে দিয়েছে। কোন কন্টাক্টার কন্টাকটারী করতে পারে না। তাদের কমিশন চাই। তাই আজকে আসুন আপনারা কারা, আপনারা আমাদের শক্তি। তাই আজকে আসেছি আপনাদের কারণেই। আপনারা আমাদের শক্তি।

 

আগামী দিনে আপনাদের নিয়েই নরসিংদীকে সংগঠিত করবো এবং আওয়ামী লীগের শক্ত ঘাঁটি তৈরী করবো। আপনাদের সাথে নিয়ে সুস্থ ধারার রাজনীতি ফিরে আনবো। সেখানে কোন হানাহানি থাকবেনা,লুটপাট থাকবেনা। কারও ইশারায় নেতা নির্বাচিত হবে না। নেতা নির্বাচিত হবে কাউন্সিলের মাধ্যমে। অবৈধভাবে কোন সন্মেলন হবে না। কে নেতা হবেন আর কে হবেন না তা কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্বাচিত হবে। তাই আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে নরসিংদীতে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি।

 

এছাড়াও আরও বক্তব্য রাখেন:  নরসিংদী সদর থানা আ’লীগের আহবায়ক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন ভূৃঁইয়া, বাংলাদেশ তাঁতী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোন্তাজ উদ্দিন ভূঁইয়া, জেলা আ’লীগের শিল্প ও বানিজ্য বিষয়ক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন মোল্লা, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়ালিউর রহমান আজিম, মাধবদী পৌর আ’লীগের সাধারণ

সম্পাদক ও পৌরসভা মেয়র মোশাররফ হোসেন মানিক, রায়পুরা উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব পার্থ রাজিব, সাবেক প্যানেল মেয়র মোঃ রিপন সরকার, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাম্মেল হক, বাংলাদেশ কৃষক লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আমিরুল ইসলাম ভূঁইয়া, জেলা আ’লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোবারক হোসেন, জেলা আ’লীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর

 

মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান ছোট্ট, জেলা শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক এসএম কাইয়ূম, জেলা ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি জুবায়ের আহম্মেদ জুয়েল, আ’লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক প্রভাত সূত্রধর, জেলা মহিলা আ’লীগের আইরিন পারভীন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আহসানুল ইসলাম রিমন, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব সুব্রত দাস সহ সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।