সুখবর জানালেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনাভাইরাসের টিকা নিতে নিবন্ধন করেও অনেকেই খুদে বার্তার অপেক্ষায় দিন গুনছেন। মাস পেরিয়ে গেলেও সাড়া পাচ্ছেন না অনেক নিবন্ধনকারী। এ নিয়ে হতাশা প্রকাশ করছেন টিকাপ্রত্যাশীরা। তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের কথায় সেসব নিবন্ধনকারী এবার স্বস্তি পেতে পারেন।

২৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে রাজধানীসহ সারাদেশে ২৫ বছরের বেশি বয়সীদের ৮০ লাখ টিকা দেওয়ার টার্গেট নিয়েছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে বিশেষ ক্যাম্পেইনও শুরু হচ্ছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, যারা নিবন্ধন করেছেন তাদের কাছে খুদে বার্তা পাঠানো হবে। খুদে বার্তা না পেলেও টিকা নিবন্ধনের কার্ড সঙ্গে নিয়ে টিকাকেন্দ্রে গেলেই টিকা দিতে পারবেন। যারা নিবন্ধন করেননি জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে নিয়ে গেলে তারাও টিকা নিতে পারবেন।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এক ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ২৮ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে দিনব্যাপী পরিচালিত এ ক্যাম্পেইনে নিবন্ধনকারী তো বটেই, নিবন্ধন করেননি এমন জনগোষ্ঠীকেও টিকার আওতায় আনা হবে। যারা নিবন্ধন করেছেন তাদের কাছে খুদে বার্তা পাঠানো হবে, খুদে বার্তা না পেলে টিকা নিবন্ধনের কার্ডটি সঙ্গে নিয়ে গেলেই টিকা দিতে পারবেন। যারা নিবন্ধন করেননি তারা জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে নিয়ে গেলে টিকা পাবেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, রাজধানীসহ সারাদেশের ইউনিয়ন (প্রতি ইউনিয়নে তিনটি টিকাদান কেন্দ্র), পৌরসভা (একটি টিকাদান কেন্দ্র) এবং সিটি করপোরেশন এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ডে (তিনটি করে টিকাদান কেন্দ্র) টিকাদান কেন্দ্র থাকবে। এ টিকাদান কর্মসূচি সফল করতে ৩২ হাজার টিকাদানকারী এবং ৪৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবীসহ মোট ৮০ হাজার মানুষ সম্পৃক্ত থাকবে।