‘গাড়ি কেনার টাকা স্বাস্থ্যসেবায় দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ’

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের গাড়ি কেনার টাকা স্বাস্থ্যসেবায় দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন। তবে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে ১৫ কোটি টাকার গাড়ি কেনার বাজেট নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন তিনি।

আনোয়ার হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দামি গাড়ি না কিনে ওই টাকা মানুষের চিকিৎসার জন্য দিয়েছেন। এজন্য তাকে ধন্যবাদ। কিন্তু রাষ্ট্রের একজন কর্মকর্তার জন্য এত দামি গাড়ি কেনা হয় কেন? এই টাকাতো আওয়ামী লীগের নয়। এ টাকা জনগণের টাকা, যে টাকা দিয়ে এখন পদ্মাসেতু হচ্ছে।

সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘মুক্তিযুদ্ধের ৫০ বছর-জনআকাঙ্ক্ষা’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে স্বাধীনতা সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পরিষদ।

বাংলাদেশে সুশাসন নেই জানিয়ে অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন বলেন, গত ১২ বছরে ৬০-৭০ শতাংশ মানুষ বৈষম্যের শিকার হয়েছেন। করোনায় সংকটের সময় বহু লোক ধনী হয়েছেন। তারা কীভাবে এতো টাকার মালিক হলেন তা সরকারকে বের করতে হবে।

তিনি বলেন, এখন জাতীয় সংসদের ৮৪ শতাংশ সদস্য ব্যবসায়ী। তারা জনগণের চেয়ে নিজেদের ব্যবসায় বেশি সময় দেন। মানুষ তার কাঙ্ক্ষিত সেবা পায় না। অন্যদিকে দেশে অর্থনীতি ও সামাজিক দিক থেকে প্রবৃদ্ধি করছে। কিন্তু এই পবৃদ্ধি অর্জনে সরকারের কোনো ভূমিকা নেই। মানুষের চেষ্টার ফলে সফলতা আসছে।

আলোচনা সভায় প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক সোহরাব হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শারমিন মার্শেদ, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পরিষদের যুগ্ম-আহ্বায়ক শেখ আব্দুন নূর, সদস্য সচিব ইফতেখার আহমেদ বাবু প্রমুখ বক্তব্য দেন।