কমলগঞ্জে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় মামলা দায়ের

রাকেল আনছারী, কমলগঞ্জ মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : কমলগঞ্জে কলেজ ছাত্রীকে জোর পূর্বক তুলে চা বাগানে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় অবশেষে মামলা করা হয়েছে। রোববার রাতে কমলগঞ্জ থানায় এ মামলা করেন কলেজ ছাত্রীর পিতা।জানা যায়, কমলগঞ্জের আব্দুর গফুর মহিলা কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী মধ্যভাগ গ্রামের হান্নান মিয়ার মেয়ের সাথে ফেসবুকে পরিচয় হয় দুবাই ফেরত যুবক ঘোষপুর গ্রামের মছকন মিয়ার ছেলে মছলম মিয়ার। পরবর্তীতে দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত ৮ সেপ্টেম্বর সকালে ওই কলেজ ছাত্রী কলেজ থেকে তার সার্টিফিকেট নিতে সিএনজিচালিত অটোরিকশা যোগে কলেজে আসছিল।
পথে মধ্যে রাণিবাজার এলাকায় পৌঁছামাত্র কথিত প্রেমিক কলেজ ছাত্রীকে বহনকারী আটোরিকশা আটকে কলেজ ছাত্রীকে জোরপূর্বক অপর অটোরিকশায় তোলে নিয়ে যায়। পরে তাকে প্রানে হত্যার ভয় দেখিয়ে শমসেরনগর চা বাগানে নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। এতে কলেজ ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে ওইদিন বিকালে তাকে মৌলভীবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে কথিত প্রেমিক পালিয়ে যায়। বর্তমানে ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, কলেজ ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তিকালে বিষপান করার কথা উল্লেখ করে তার সাথে থাকা লোক পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় রোববার রাতে কমলগঞ্জ থানায় মামলা করেন কলেজ ছাত্রীর পিতা হান্নান মিয়া। কমলগঞ্জ থানার মামলা নং ১২। মামলায় কথিত প্রেমিক মছলম মিয়াকে আসামী করা হয়েছে। কমলগঞ্জ থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামীকে আটকে পুলিশী অভিযান চলছে।