অসৎ রাজনীতিবিদ-আমলা জাতির জন্য অভিশাপ: কৃষিমন্ত্রী

রাজনীতিবিদ ও আমলা যতোই বড় হোক না কেন, সৎ না হলে তারা জাতির জন্য অভিশাপ ও বোঝাস্বরূপ বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এমপি।

তিনি বলেন, সততা সবচেয়ে বড় শক্তি। রাজনীতিবিদ, সরকারি কর্মকর্তা যতোই বড় হোক, শীর্ষস্থানে থাকুক- সততা না থাকলে তারা জাতির জন্য কল্যাণকর নয়, বরং অভিশাপ ও বোঝাস্বরূপ।

বুধবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর লালবাগে নবাবগঞ্জ সাত শহীদ কমিউনিটি সেন্টারে করোনাকালে দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি) ও নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড (এনডব্লিউপিজিসিএল) যৌথভাবে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা পৃথিবীতে সবচেয়ে সৎ, সক্ষম ও সফল একজন নেতা। জাতির সবচেয়ে বড় পাওয়া যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সততায় বিশ্বে শীর্ষস্থানে রয়েছেন। ১৭ কোটি মানুষের জন্য, বাংলাদেশের জন্য এটি আশীর্বাদস্বরূপ। তার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধশালী ও উন্নত দেশে পরিণত হবে।

বিএনপির উদ্দেশ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আরও বলেন, বিএনপি বার বার বলছে, দেশে গণতন্ত্র নেই। কিন্তু এ কথা তাদের মুখে মানায় না। ক্ষমতায় থাকতে তারা গণতন্ত্রের নামে যেসব অপকর্ম করেছে, তা দেশবাসী জানে। বর্তমানে দেশে অবশ্যই প্রকৃত গণতন্ত্র আছে, কিন্তু বিএনপির সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করার গণতন্ত্র নেই। গাড়িতে, বাড়িতে, রাস্তায় নিরপরাধ মানুষকে পুড়িয়ে মারার জন্য বিএনপির যে গণতন্ত্র, তা দেশে নেই।

২০২৩ সালের নির্বাচনে বিএনপিকে অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়ে ড. রাজ্জাক আরও বলেন, আপনারা আগামী নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুন। দেশের জনগণ আপনাদের ভোটে বিজয়ী করলে আমরা আপনাদের স্বাগত জানাবো। কিন্তু আন্দোলন-সংগ্রামের নামে সন্ত্রাস-নৈরাজ্যমূলক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের পতন ঘটানো যাবে না, সে শক্তি বিএনপির নেই।

অনুষ্ঠানে আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী মোল্লা মো. আবুল হোসেনের সভাপত্বিতে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ও আইইবির প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আবদুস সবুর, নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী খোরশেদুল আলম, আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী শাহাদাৎ হোসেন ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ বক্তব্য দেন।