শিক্ষার্থীদের ওপর থেকে হিজাব নিষেধাজ্ঞা বাতিল উজবেকিস্তানে

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মুসলিম শিক্ষার্থীদের ওপর থেকে হিজাব পরার বিষয়ে সরকারের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে মধ্য এশিয়ার দেশ উজবেকিস্তান।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে মূলত মুসলিম মেয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাড়াতে সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে তথ্যটি জানিয়েছে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসলামই উজবেকিস্তানের প্রধান ধর্ম হলেও দেশটির কর্তৃত্ববাদী সরকার কার্যত কট্টর অসাম্প্রদায়িক। সোভিয়েত ইউনিয়নের কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জনের পর গেল ৩ দশকে ধর্মীয় রীতিনীতি পালনে কঠোর নিয়ন্ত্রণ বজায় রেখেছে দেশটি।

সম্প্রতি উজবেকিস্তানের শিক্ষামন্ত্রী শেরজদ শেরমাতভ জানিয়েছিলেন, বহু সংখ্যক অভিভাবকের আবেদনের প্রেক্ষিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মেয়ে শিক্ষার্থীদের সাদা অথবা হালকা রংয়ের হিজাব বা মাথার টুপি ব্যবহারের বিষয়টি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

যদিও তার দাবি, শিক্ষার্থীদের ধর্ম নিরপেক্ষ শিক্ষা প্রদান নিশ্চিতের লক্ষ্যই সিদ্ধান্তটি প্রয়োজন ছিল। কিন্তু হিজাব পরার প্রসঙ্গে এবার অনুমতি দেওয়া হলেও মুসলিম শিক্ষার্থীরা সেটি ব্যবহার করে তাদের থুতনি ঢাকতে পারবে না।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, স্বৈরশাসক ইসলাম কারিমভের মৃত্যুর পর ২০১৬ সালে উজবেকিস্তানের ক্ষমতায় আসেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট শাভকত মিরজিয়োইয়েভ। মূলত এরপর থেকেই ইসলামের ওপর আরোপিত বিভিন্ন বিধিনিষেধ একের পর এক শিথিল করছেন তিনি।