মহম্মদপুরে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ২০ আটক ৫

মহম্মদপুর  মাগুরা  প্রতিনিধি : মাগুরার মহম্মদপুরে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষে মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বুধবার বিকেলে উপজেলার দীঘা ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের নারীসহ ২০জন আহত হয়েছে। আহতদের ১২জন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। বাকীরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

এ ঘটনায় ৫জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো- মো. ছামাদ (২৬), শরিফুল (২৭), আলিম (১৮), রিয়াজ (২২) ও নাসির (২০)।

গুরুত্বর আহতদের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে- তুহিন মোল্যা (৩০), মোস্তাক হোসেন (৫০), সোহেল রানা (২৬), সাজ্জাদ মোল্যা (৪৫), সাদেক মোল্যা (৪০), ছবির হোসেন (৫৫), আশরাফুল (৩১), গোলাম হায়দার (৪৫), গোলাম রসুল (৬০) এবং ফজিলা বেগম (৩৮)।

সুত্র জানায়, এদিন বিকেলে পাল্লা শীরগ্রাম মাঠে বাবুখালী ইউনিয়ন ও দীঘা ইউনিয়নের মধ্যে প্রীতি ফুটবল চলছিলো। গোলের সামনে বল পেয়েও গোল দিতে মিস করে খেলোয়াড় আইয়ুব মোল্যা। এতে নিজ দলের খেলোয়াড় ছামাদ মোল্যা তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। এক পর্যায়ে দুইজনের হাতাহাতি শুরু হয়। খেলা দেখতে আশা সমর্থকদের মাঝেও উত্তেজনা বিরাজ করে। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে দুই সাবেক মেম্বর আলম নবী ও আদুজ্জামান এর সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে প্রায় ২০জন আহত হয়েছে এবং ৫জনকে আটক করেছে মহম্মদপুর থানা পুলিশ।

মহম্মদপুর থানার ওসি মো. নাসির উদ্দিন বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে এলাকায় অতিরিক্তি পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থল থেকে ৫জনকে আটক করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।