বৃষ্টি থাকতে পারে আরও ৩ দিন

গত কয়েক দিনের তুলনায় বৃষ্টি অনেকটাই বেড়েছে, তাপমাত্রাও কমেছে। বৃষ্টির এই প্রবণতা আগামী তিনদিন অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে বৃষ্টির প্রবণতা গত কয়েক দিনের তুলনায় বেশি ছিল। ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ১১৮ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে, সন্দ্বীপে। এ সময় ঢাকায় ৩৮ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়া টাঙ্গাইলে ৮০, নিকলীতে ৬৭, ময়মনসিংহে ২৯, নেত্রকোনায় ২২, চট্টগ্রামে ৪০, সীতাকুণ্ডে ৭৩, রাঙামাটিতে ২৯, মাইজদীকোর্টে ১৮, ফেনীতে ৬২, হাতিয়ায় ১৬, কুতুবদিয়ায় ১৬, সিলেটে ৪৭, রাজশাহীতে ১৫, তাড়াশে ২৪, রংপুরে ১১, দিনাজপুরে ১১, তেঁতুলিয়ায় ৩৬, রাজারহাটে ৩০, চুয়াডাঙ্গায় ৬০, কুমারখালীতে ৩৪, পটুয়াখালীতে ৪৯, খেপুপাড়ায় ৫৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে

শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গায় ৩৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একদিন আগে বৃহস্পতিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল মোংলায় ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, মৌসুমি বায়ুর অক্ষের বর্ধিতাংশ পাঞ্জাব, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুর ইসলাম বলেন, ‘শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।’

এ সময়ে সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আগামী তিন দিন বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানান এই আবহাওয়াবিদ।