মা-বাবার পর না ফেরার দেশে ৫ বছরের আয়েশাও

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে অটোরিকশার ‘ব্যাটারি বিস্ফোরণে’ দগ্ধ মা-বার মৃত্যুর তিন দিন পর তাদের মেয়ে আয়েশাও না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন।

বুধবার সকালে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় পাঁচ বছরের আয়েশা।

শুক্রবার ভোরে সিলেটিবাজারের আহসানবাগ কাজী গলির একটি দোতলা বাড়ির নিচতলায় অটোরিকশার ‘ব্যাটারি চার্জ করার সময় বিস্ফোরণে’ আগুন লেগে দগ্ধ হয় আয়েশাদের পরিবারের চারজন।

পরদিন আয়েশার বাবা আব্দুল মতিন (৪০) এবং মা ইয়াসমিন আক্তার ময়না (৩৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তাদের শরীরের ৯৫ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল।

আর তাদের দুই মেয়ে আয়শা (৫) ও মায়শার (১০) শরীরের ৪২ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। তারা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন ছিল। পরিবারের তিনজনের মৃত্যুর পর এখন কেবল মায়শা হাসপাতালে বেঁচে আছে।

দুর্ঘটনার বিষয়ে কামরাঙ্গীরচর থানা পুলিশ জানায়, অটোরিকশার ব্যাটারি রিচার্জ করার সময় হঠাৎ বিস্ফোরণ থেকে ঘরে আগুন লেগে যায়। ধারণা করা হচ্ছে, চার্জারের বৈদ্যুতিক সংযোগ ও ফ্রিজের সংযোগ একই লাইনে থাকায় ওই দুর্ঘটনা ঘটে।