তেলআবিবে দূতাবাস খুলছে আমিরাত

মধ্যপ্রাচ্যের ইহুদিবাদী দখলদার রাষ্ট্র ইসরায়েলে দূতাবাস খুলছে মুসলিম রাষ্ট্র সংযুক্ত আরব আমিরাত। আগামী বুধবার (১৪ জুলাই) আনুষ্ঠানিকভাবে দূতাবাসটির উদ্বোধন করা হবে। এদিন ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হ্যারজগের উপস্থিতিতে তেলআবিবে এই দূতাবাসের কার্যক্রম শুরু হবে।

আমিরাতের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আল খাজা অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন। দায়িত্ব প্রাপ্তির পর গত ১ মার্চ থেকেই ইসরায়েলে অবস্থান করছেন তিনি।

এর আগে গেল ২৯ ও ৩০ জুন সংযুক্ত আরব আমিরাতে প্রথম আনুষ্ঠানিক সফরে যান ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়ায়ির লাপিদ। সফরে তিনি আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে ইসরায়েলের দূতাবাস ও বৃহত্তম শহর দুবাইয়ে কনস্যুলেটের উদ্বোধন করেন।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় গত বছরের আগস্টে পারস্য উপসাগরীয় দুই দেশ, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরায়েলের সাথে স্বাভাবিক কূটনীতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে সম্মতি জানায়।

গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর তারিখে যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবন হোয়াইট হাউসে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরায়েলের সাথে কথিত ‘ইবরাহীমি চুক্তির’ মাধ্যমে সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণ ও বাণিজ্য, প্রযুক্তি, শিক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহায়তায় চুক্তিবদ্ধ হয়।

চুক্তির অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরায়েলে তাদের কূটনীতিক মিশন প্রতিষ্ঠা করেছে। ইসরায়েলের দখলদারিত্বের শিকার ফিলিস্তিনি আরবরা এই চুক্তিকে তাদের পিঠে ছুরিকাঘাতের সাথে তুলনা করছেন।