নওগাঁয় অভিযোগের মাত্র ১৬ ঘন্টার মধ্যেই চুরি যাওয়া গরু উদ্ধার সহ ২জনকে আটক করলো পুলিশ

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ নওগাঁয় অভিযোগের মাত্র ১৬ ঘন্টার মধ্যেই যেভাবে অভিযান পরিচালনা করে চুরি যাওয়া ২ টি গরু উদ্ধার সহ ২জনকে আটক করলো থানা পুলিশ।
নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার আধাইপুর ইউনিয়নের কার্তিকাহার গ্রামে ৭ জুলাই দিবাগত রাতে আশরাফুল
ইসলামের বাড়ির গোয়াল ঘরের ইটের দেওয়াল কেটে একটা গাভী ও একটি বকনা গরু
চুরি করে নিয়ে যায় অজ্ঞাত চোরের দল। গরুর মালিক ৮ জুলাই বদলগাছী থানায় অজ্ঞাত নামে অভিযোগ দায়ের করলে চোরদেরকে আটক করতে ও গরু উদ্ধারে অভিযানে নামে থানা পুলিশ। গোপন
সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাত ৯ টার দিকে উপজেলার কোলা ইউনিয়নের কোলা
গ্রামের মৃত আফাজ উদ্দীনের ছেলে আছতুল ফকিরের বাড়ি থেকে গাভী এবং একই
গ্রামের মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে চঞ্চল হোসেনের বাড়ি থেকে বকনা গরুটি উদ্ধার
করে পুলিশ। এ সময় আসতুল ফকির ও চঞ্চল হোসেনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
গরুর মালিক রেজাউল ইসলাম বলেন, প্রতিদিনের ন্যায় গরু গোয়াল ঘরে রেখে ঘুমিয়ে
যাই। পরদিন ভোর বেলা গোয়াল ঘর খুলে দেখি ইটের দেওয়াল কেটে গরু দুটি কে বা কারা চুরি করে নিয়ে যায়। অনেক খোঁজা খুঁজির পর গরু দু’টি না পেয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে কোলা ইউনিয়নের কোলা গ্রামের আছতুল ফকির ও চঞ্চল হোসেনের বাড়ি থেকে গরু দুটি উদ্ধার করে এবং দুজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।কোলা ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাহিনুর ইসলাম স্বপন বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাতে কোলা পশ্চিমপাড়ার আছতুল ফকির ও চঞ্চল হোসেনের বাড়ি থেকে গরু দুটি উদ্ধার করে পুলিশ। তিনি আরও জানান, এলাকায় গরু চুরির হিড়িক পড়েছে। গত এক মাসের ব্যবধানে শুধু কোলা ইউনিয়নে ২০/২২টি গরু চুরি হয়েছে। গরু চুরি রোধে প্রশাসনকে আরও তৎপর হওয়ার জন্য অনুরোধ করেন তিনি।
বদলগাছী থানার ওসি মোঃ আতিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগের মাত্র ১৬ ঘন্টার মধ্যেই চুরি যাওয়া গরু দুটি উদ্ধার করতে এবং চোরদেরকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, গরু চুরি সিন্ডিকেটের মূল হোতা রয়েছে। ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিজ্ঞ আদালতে আবেদন করা হবে। আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।