রবিবার আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ, বাকি চারদিন ৫ ঘণ্টা করে খোলা

করোনা সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাইনের বিধিনিষেধ ১৪ জুলাই পর্যন্ত বা‌ড়ি‌য়ে‌ছে সরকার। এ সময় ব্যাংকের মতো ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানও সীমিত পরিসরে খোলা থাকবে।

গ্রাহকদের জরুরি আর্থিক সেবা দিতে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই ) থেকে সকাল ১০টা- বিকাল ৩টা পর্যন্ত খোলা থাকবে এসব প্রতিষ্ঠান। এছাড়া বিধিনিষেধ চলাকালে শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে রবিববারও বন্ধ থাকবে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো।

বুধবার (৭ জুলাই) বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও বাজার বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়েছে।

সার্কুলারে আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালকদের বলা হয়, ‘গ্রাহকদের জরুরি আর্থিক সেবা দেওয়ার লক্ষ্যে স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন করে সীমিত আকারে আর্থিক প্রতিষ্ঠান কার্যক্রম চালু থাকবে। বিধিনিষেধ চলাকালে শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটিসহ রবিবার বন্ধ থাকবে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো।’

‘ছুটির দিন ও রবিবার ব্যতীত সপ্তাহের অন্যান্য দিন গ্রাহকের হিসাবের মেয়াদপূর্তিতে স্থায়ী আমানত নগদায়ন, ঋণের কিস্তি জমা গ্রহণসহ জরুরি কাজ সম্পাদন করা যাবে। তবে অফিস খোলা রাখার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে সীমিত সংখ্যক লোকবলের মাধ্যমে সেবা প্রদানের বিষয়টি নিশ্চিত করতে বলেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সর্বোচ্চ দুটি শাখা (একটি ঢাকায় ও অপরটি ঢাকার বাইরে) ও প্রধান কার্যালয়ের সংশ্লিষ্ট বিভাগ সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ৫ ঘণ্টা খোলা রাখা যাবে। জরুরি গ্রাহক সেবা নির্বিঘ্ন রাখতে প্রয়োজনীয় জনবলের বিন্যাস ও উপস্থিতির বিষয়টি প্রতিষ্ঠানগুলো স্বীয় বিবেচনায় সম্পন্ন করবে।’

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, ‘আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চলাচলের সময় স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত পরিচয়পত্র বহন করতে হবে।