মদন গোবিন্দশ্রী বৈখাশী খালে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ

শহীদুল ইসলাম, নেত্রকোণা : নেত্রকোণা মদন উপজেলা গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের বাজারের পাশে বৈশাখী খালে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে গতকাল এক সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ২জন নারী গুরুতর আহত হয়। এ অবস্থায় পরিবারের লোকজন মদন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করে। আহত নারীরা হলেন, নয়ন মিয়ার স্ত্রী সখিলা বেগম (৩০), বাবুল মিয়ার স্ত্রী মাইমুনা আক্তার (৩৫)।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, একই গ্রামের গোবিন্দশ্রী বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মামুনের নেতৃত্বে গতকাল ২৬শে জুন সকাল ১১.০০ টায় মৃত হাদিছ উদ্দিন খানের ছেলে রিধন খানের দোকান ও এলইডি টেলিভিশন ও টাকা-পয়সা লুঠপাট করে নিয়ে যায়। ২৭শে জুন সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, অভিযোগকারী রুবেল মিয়া বলেন, যেখানে আমরা মাছ ধরার জাল ফেলেছি সেটি আমাদের পৈত্তিক সম্পত্তি। আমরা বৈশাখী খালে নৌকা চলাচলের জন্য সাধারণ জনগণকে বাঁধা নিষেধ করি নাই। আমাদের জায়গায় আমরা মাছ ধরার জাল ফেলি, এতে গোবিন্দশ্রী বাজারের সাধারণ ব্যবসায়ী মৃত রাজালীর ছেলে খায়রুল (৫০) ও আনিছুরের ছেলে ভুট্টু (৩০) তার দলবলসহ ও অবৈধভাবে সন্ত্রাসী কায়দায় আমাদের উপর হামলা চালায় এবং গোবিন্দশ্রী বাজারের বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আমাদের পরিবারের লোকজন যাতে কোন দোকান হতে মালামাল ক্রয় করতে না পারে তার জন্য নিষেধ করে।

ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তা রূপক চন্দ্র সরকার এ প্রতিনিধিকে জানান, রুবেলের ভূমিতে মাছ ধরার জাল ফেলেছে। বিআরএস রেকর্ড মূলে ভূমির মালিক মৃত হাদিছ উদ্দিন খান। বৈশাখী সরকারি খাল দিয়ে সাধারণ জনগণের চলাচল নিষেধ করা যাবে না।

তদন্ত কর্মকর্তা মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, মাছ ধরাকে নিয়ে গতকাল সংঘর্ষ হয়েছে এবং থানায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। ২৭শে জুন অভিযোগটি তদন্ত করেছি। মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।