টানা বৃষ্টির পর দেখা মিলল সূর্যের

ঝলমলে সূর্যের দেখা পেল নগরবাসী। গত কয়েকদিন ধরে আষাঢ়ে বৃষ্টির কারণে সকাল থেকেই আকাশ মেঘাচ্ছন্ন ছিল। প্রকৃতির নিয়মে রাত শেষে ভোরে সূর্যোদয় হলেও মেঘে ঢাকা থাকায় সেটি দৃষ্টির আড়ালেই ছিল।

কিন্তু বুধবারের (২৩ জুন) সকালটা গত কয়েকদিনের থেকে একটু ভিন্ন। স্বাভাবিক সময়ের মতো পুব আকাশে ঝলমলে সূর্যের দেখা মেলে।

গত কয়েকদিন সকাল থেকেই কখনো ঝিরঝির, কখনো মুষলধারে বৃষ্টির কারণে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা অনেকটাই ব্যাহত হয়। সকালে জীবিকার সন্ধানে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, ব্যবসায়ী ও নিম্ন আয়েরসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ কেউ ছাতা মাথায় কেউ বা কাকভেজা হয়ে গন্তব্যে ছুটেন। কিন্তু আজ সকাল থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন না থাকায় দৃশ্যপট ছিল স্বাভাবিক।

সরেজমিন রাজধানীর একাধিক এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, অন্যান্য দিনের চেয়ে রাস্তাঘাট ও যানবাহনে মানুষের সংখ্যা বেশি। আষাঢ় মাসে বৃষ্টি যেকোনো সময় নামতে পারে এমন ভাবনা থেকে কেউ কেউ ছাতা সঙ্গে করে নিয়ে বের হন।

তবে আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে ভিন্ন কথা। ঢাকার আকাশে ঝলমলে সূর্যের দেখা মিললেও যেকোনো সময় ফের বৃষ্টি নামতে পারে।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সন্ধ্যা ছয়টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয় চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগে অধিকাংশ জায়গায় এবং রাজশাহী-রংপুর ঢাকা-ময়মনসিংহ খুলনা বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। রাতের ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়, বজ্রসহ বৃষ্টির প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে।

এদিকে মঙ্গলবার চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে সর্বোচ্চ ৬৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। একই সময়ে রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টিপাত হয় ২৭ মিলিমিটার।