সর্বশেষ :

বিজয়নগরে উপজেলা মডেল মসজিদ ও ৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বহুতল ভবন উদ্ভোধন

মহাম্মদ মহসিন আলী (বিজয়নগর)  ব্রাহ্মণবাড়িয়া :প্রায় ছয় কোটি টাকা ব্যয়ে ৪ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪ টি বহুতল একাডেমিক ভবনের  উদ্ভোধন করেন বে-সামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৩ (সদর-বিজয়নগর) আসনের সংসদ সদস্য, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র.আ.ম.উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এমপি।

১০ জুন বৃহঃবার সকাল ১১ টায় বিজয়নগর উপজেলা কমপ্লেক্স ভবন গুলো ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে উদ্ভোধন করেন র.আ.ম উবাদুল মোক্তাদির চৌধুরী এমপি।
উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন ব্যয় হয়েছে ৭৫ লাখ টাকা। চাঁনপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ তলা “অধ্যাপক ফাহিমা খাতুন একাডেমিক ভবন” যার ব্য হয়েছে ২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। মহেশপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় তলা “যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরি একাডেমি ভবন” যার ব্যয় হয়েছে ৯৯ লাখ টাকা। পাহাড়পুর ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে একাডেমিক ভবন যার ব্যয় হয়েছে ১ কোটি ১৭ লাখ টাকা।

উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে এমপি বলেন, ধর্মীয় গোঁড়ামি মানুষকে উগ্রতা,আগুন সন্ত্রাস,হিংস্রতা শেখায়। ইসলামের প্রকৃত শিক্ষায় ভুমিকা রাখবে এ মসজিদ। এতে সমাজ থেকে ধর্মান্ধতা ও জঙ্গিবাদ দূর হবে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এসময় গন ভবন থেকে অনলাইনে যুক্ত থেকে মুজিব বর্ষ উপলক্ষে প্রথম ধাপে ৫০ টি উপজেলা মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্ভোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ৫০ টি উপজেলা মডেল মসজিদ ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্ভোধনের প্রথমধাপে বিজয়নগর উপজেলা মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের উদ্ভোধন হয়।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধিনে গণর্পুত অধিদপ্তরের তত্বাবধানে ২০১৮ সালের মার্চ মাসে এর কাজ শুরু হয়। ৪৭ শতক ভূমির উপর ৩ তলা বিশিষ্ট ১০ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত মডেল মসজিদ ও ইসলামি সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে ৭০০ জন মুসল্লীর এক সাথে নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে। সারাদেশে মোট ৫৬০ টি মডেল মসজিদ নির্মাণাধীন। মুজিব বর্ষের প্রথম ধাপে ৫০ টি মসজিদ পরিপূর্ণ হওয়ায় উদ্ভোধন করা হয়েছে। বি-ক্যাটাগরির, মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে থাকবে ইমাম,মুয়াজ্জিন ও ২ জন খাদেম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ -দৌলা খাঁন, বিজয়নগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাছিমা মুকাই আলী,বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট তানবীর ভূঞা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে এম ইয়াসির আরাফাত,সহকারি কমিশন (ভুমি) রাবেয়া আফসার সায়মা ,উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদুর রহমান মান্না ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাবিত্রী রাণী প্রমুখ।