সৌদি যুবরাজের সঙ্গে পেন্টাগন প্রধানের বৈঠক

সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন স্পোক। পেন্টাগন বিবৃতির মাধ্যমে জানিয়েছে, বুধবার (২ জুন) তাদের মধ্যে বৈঠক হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ সেই বৈঠকে আঞ্চলিক নিরাপত্তা এবং জনগণকে রক্ষায় সৌদি আরবের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতির ওপর জোর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি জানিয়েছেন, আঞ্চলিক নিরাপত্তা, বিশেষ করে ইয়েমেন যুদ্ধের সমাপ্তি এবং সৌদি আরবের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে চলমান দ্বিপাক্ষিক প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেছেন অস্টিন এবং প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

২০১৪ সাল থেকে ইয়েমেনের উত্তরাঞ্চলের বেশিরভাগ অংশ নিয়ন্ত্রণ করছে ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীরা। তারা সীমান্ত পেরিয়ে সৌদি আরবে ক্রমাগত হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। একই সঙ্গে ইয়েমেনের গ্যাস সমৃদ্ধ মারিব অঞ্চল দখল করতে আক্রমণাত্মক চাপ তৈরি করছে বলেও অভিযোগ রয়েছে।

রাজধানী সানা থেকে সৌদি সমর্থিত সরকারকে হুথি বিদ্রোহীরা সরিয়ে দেয়ার পর ২০১৫ সালে ইয়েমেন সংঘাতে হস্তক্ষেপ করে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট। হুথিদের দাবি, তারা দুর্নীতি ব্যবস্থাপনা এবং বিদেশী আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদি আরবে হুথিদের আক্রমণকে পরাজিত করতে পারায় সৌদির সাম্প্রতিক সাফল্যের কথা উল্লেখ করেছেন অস্টিন এবং তিনি ইয়েমেন যুদ্ধের অবসান ঘটাতে ইয়েমেনে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ দূত টিম লেন্ডারকিংয়ের সঙ্গে কাজ করার জন্য ক্রাউন প্রিন্স সালমানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

গত মাসে যুদ্ধবিরতি রক্ষায় যেসব প্রচেষ্টা স্থবির হয়ে গেছে তার জন্য হুথি গোষ্ঠীর তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি ইয়েমেনের সব বন্দর ও বিমানবন্দরের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে জোটের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

ইয়েমেনের সংঘাতে এখন পর্যন্ত এক লাখের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই বেসামরিক নাগরিক। দেশটিতে কয়েক লাখ মানুষ তীব্র মানবিক সংকটে দিন কাটাচ্ছে।