পশ্চিমবঙ্গে আরও তিনজনের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্ত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে নতুন করে আরও তিনজন ব্ল্যাক ফাঙ্গাস রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন কলকাতার বাসিন্দা এবং একজন পশ্চিম মেদিনীপুরের।

এই নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে মোট ব্ল্যাক ফাঙ্গাস শনাক্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৯ জন। আর এতে রাজ্যটিতে মোট মারা গেছেন চারজন। খবর নিউজ১৮।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সন্দেহজনক ব্ল্যাক ফাঙ্গাস আক্রান্ত হিসেবে ১০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এতে এখনও পর্যন্ত মোট সন্দেহজনক আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হলো ৫৪ জনে। একই সময়ে সন্দেহজনক আক্রান্তদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তারা সকলেই নারী। এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে অন্তত ১২ জন ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সন্দেহজনক রোগীর মৃত্যু হলো।

পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য দফতর বলছে, ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণ ঠেকাতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা জরুরি। গ্লাভস পরে থাকা প্রয়োজন। এছাড়া বাড়িতে খোলা জায়গায় পচা ফল বা সবজি, পাউরুটি ইত্যাদি রাখা যাবে না। ধুলোবালি রয়েছে এমন জায়গায় সতর্কতা নিয়ে যেতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা রোগীদের মধ্যে অন্তত পাঁচ শতাংশ গুরুতর সংক্রমণের শিকার হন, যাদের আইসিইউতে থাকতে হয়। এই চিকিৎসা অনেক সময় দীর্ঘদিন ধরে চালানো হতে পারে। যাদের ভেন্টিলেটার যন্ত্রের মাধ্যমে শ্বাসপ্রশ্বাসের ব্যবস্থা করতে হয়, তাদেরই ব্যাকটেরিয়া বা ফাঙ্গাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকে সবচেয়ে বেশি।

এছাড়া স্টেরয়েড এবং অন্যান্য ওষুধের মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার রোগীদের শরীরের স্বাভাবিক রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা নষ্ট করে দেয়। করোনা রোগীদের শরীরে অন্যান্য উপসর্গ থাকায় তাদের জন্য এই ফাঙ্গাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে বেশি।