বিয়ের পর স্বামী উধাও, প্রতিবেশীর ‘টিটকারিতে’ গৃহবধূর আত্মহত্যা

প্রেমের সম্পর্কে শুভ পালের সঙ্গে বিয়ে হয় চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড এলাকার বাসিন্দা তৃষ্ণা জলদাশের (১৯)। কিন্তু বিয়ের মাত্র চারদিন পরেই উধাও হয়ে যান স্বামী। গত দেড় মাস আগের এই ঘটনা নিয়ে প্রতিবেশীরা প্রায় সময় টিটকারি করতেন তৃষ্ণার সঙ্গে। এরই মধ্যে আবার কয়েকদিন আগে শুভ পালের অন্যত্র বিয়ের খবর পান তৃষ্ণা। এতে প্রতিবেশীদের টিটকারির মাত্রা আরও বেড়ে যায়। সবমিলিয়ে আশপাশের মানুষের এই অপমানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তৃষ্ণা জলদাশ।

মঙ্গলবার (১ জুন) দিবাগত রাত ৯টার দিকে তৃষ্ণা বাবার বাড়িতে আত্মহত্যা করেন। তিনি সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের বাসিন্দা মৃত মোহন লালের মেয়ে।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) শীলব্রত বড়ুয়া।

তিনি বলেন, ‘রাত ১০টার দিকে সীতাকুণ্ড এলাকা থেকে গলায় ফাঁস দেয়া আহত এক গৃহবধূকে হাসপাতালে আনে স্বজনরা। পরে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তৃষ্ণার ভাই যীশু জলদাশ জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমার বোনের গত দেড় মাস আগে শুভ পালের সঙ্গে বিয়ে হয়। শুভ পালের গ্রামের বাড়ি সন্দ্বীপ হলেও ছোটবেলা থেকেই সে আমাদের গ্রামে তার মামার বাড়িতে থাকত। বিয়ের মাত্র চারদিন পর শুভ পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় তৃষ্ণা আমাদের বাড়িতে চলে আসলেও আশেপাশের লোকজন বিষয়টি নিয়ে আমার বোনের সঙ্গে টিটকারি করত।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত কয়েকদিন আগে লোকমুখে শুভর আরেকটি বিয়ের খবর শুনে আমার বোন মঙ্গলবার রাতে আত্মহত্যা করে।’