কন্যা সন্তানকে পুকুরে ডুবিয়ে হত্যা করলো মা!

পরপর চারটি সন্তান কন্যা হওয়ায় আটদিনের নবজাতককে পুকুরের ডুবিয়ে হত্যা করলো মা। মঙ্গলবার (১ জুন) সকালে সাতক্ষীরা তালা উপজেলা খলিলনগর ইউনিয়নে ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটায় পুলিশ নবজাতকের মরদেহ বাড়ির পাশের পুকুর থেকে উদ্ধার করে। একই সাথে গর্ভধারিণী মা শ্যামলী ঘোষ (৩৬) কে আটক করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তিনি মঙ্গলবার সকালে নবজাতককে পুকুরে ফেলে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন। কন্যা সন্তানের জন্ম হওয়ায় স্বামীর ভৎসনা সইতে না পেরে তিনি এমন কাজ করেছেন বলে পুলিশকে জানিয়েছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য বিকাশ মন্ডল জানান, বিষয়টি দুঃখজনক। শিশুটি হারিয়ে যাওয়ার খবরে তারা দিনব্যাপী ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেছিলেন। সর্বশেষ রাতে বাড়ির পুকুরে তার লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দিলে তারা লাশ উদ্ধার ও তার মাকে হত্যা সন্দেহে আটক করেছে।

তালা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মেহেদী রাসেল জানান, রায়পুরের মানিক ঘোষ ও শ্যামলী ঘোষ দম্পতির পরপর চারবার কন্যা সন্তান হওয়ায় আটদিনের নবজাতককে পুকুরের পানিতে ডুবিয়ে হত্যা করেছে গর্ভধারিণী মা। ময়না তদন্তের জন্য লাশ সাতক্ষীরা মর্গে পাঠানো হয়েছে।