এলপি গ্যাসের দাম আরও কমল

ভোক্তাপর্যায়ে তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাসের (এলপিজি) দাম আরেক দফা কমিয়েছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)।

বিইআরসির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী— বেসরকারি খাতে ১২ কেজি সিলিন্ডারের এলপিজি ভ্যাটসহ ৯০৬ টাকা থেকে কমিয়ে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ৮৪২ টাকা করা হয়েছে। আগামীকাল ১ জুন থেকে নতুন নির্ধারিত এ মূল্য কার্যকর হবে।

তবে উৎপাদন পর্যায়ে ব্যয় পরিবর্তন না হওয়ায় রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানির এলপিজির দাম পরিবর্তন করা হয়নি। সরকারি খাতের সাড়ে ১২ কেজি এলপিজির দাম আগের ৫৯১ টাকাই থাকছে।

আর গাড়িতে ব্যবহৃত এলপিজির নতুন দাম প্রতি লিটার ৪১ টাকা ৭৪ পয়সা। আগে এটি ছিল ৪৪ টাকা ৭০ পয়সা।

সোমবার (৩১ মে) জ্বালানি খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিইআরসি আয়োজিত ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

গত ১২ এপ্রিল দেশে প্রথমবারের মতো এলপিজির দাম নির্ধারণ করেছিল সংস্থাটি। সেসময় বলা হয়েছিল, বিশ্ববাজারের সঙ্গে মিল রেখে প্রতি মাসে দাম সমন্বয় করা হবে। ঘোষণা অনুযায়ী গত ২৯ এপ্রিল প্রথম দফা দাম সমন্বয় করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আবদুল জলিল বলেন, সৌদি সিপি, ডলারের বিপরীতে টাকার বিনিময় হার ও ব্যাংকিং হারে পরিবর্তন বিবেচনা করে দাম সমন্বয় করা হয়েছে।

দাম কার্যকর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেউ নির্ধারিত দামের কমে বিক্রি করতে পারে। কিন্তু বেশি দামে বিক্রি করা যাবে না। কমিশনঘোষিত মূল্যহার বাস্তবায়নে স্থানীয় প্রশাসন যাতে ভূমিকা রাখতে পারে, সে জন্য বাণিজ্যসচিব ও জ্বালানিসচিবকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিইআরসির সদস্য মোহম্মদ আবু ফারুক, মকবুল ই ইলাহি চৌধুরী, মোহাম্মদ বজলুর রহমান ও মো. কামরুজ্জামান।