বিকালেই ঝড়-বৃষ্টির আভাস, রূপ বদলাবে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’

গত কয়েকদিনের তীব্র তাপদাহের মাঝে আজ দেশের বেশিরভাগ এলাকায় বিকালের মধ্যে ঝড়ো হাওয়ার সাথে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। একই সাথে সাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটিও রূপ বদলে ঘূর্ণিঝড় যশ এ পরিণত হতে পারে।

সোমবার (২৪ মে) এক পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, এসবের মধ্য দিয়ে সারাদেশে গরম কমে আসতে পারে।

জানা গেছে, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় সৃষ্ট সুস্পষ্ট লঘুচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এটি ক্রমশ আরও শক্তিশালী হয়ে আজ ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। এরই মধ্যে এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম দেওয়া হয়েছে যশ।

এ ব্যাপারে আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ রবিবার রাতে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আগামী বুধবার বিকাল নাগাদ এটি বাংলাদেশের উপকূলে আসতে পারে। তবে এটি সুপার সাইক্লোনে রূপ নেওয়ার আশঙ্কা কম। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত হতে পারে বলে আমরা ধারণা করছি।’

তিনি বলেন, এরই মধ্যে নিম্নচাপটির গতিপথ কিছুটা পরিবর্তিত হয়ে ওড়িশার দিকে রয়েছে। এভাবে যেতে থাকলে বাংলাদেশে এর কম প্রভাব থাকবে।

এ দিকে, আবহাওয়াবিদদের দাবি- বঙ্গোপসাগরে গভীর নিম্নচাপটির কারণে বাংলাদেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উড়িষ্যার বাতাস গিয়ে ঘূর্ণিতে জড়ো হচ্ছে। এতে আকাশে হালকা মেঘের আস্তরণ তৈরি হয়েছে। ফলে আটকে থাকছে সূর্যের তাপ। একই সাথে জলীয় বাষ্প গরমের অনুভূতি বাড়িয়ে দিয়েছে।

ফলে আজকের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে বাতাস ও বৃষ্টি বেড়ে গরম কমে আসতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ।