কেন নারী কোটা বাতিল হলো আমার বুঝে আসে না : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী

সরকারি চাকরিতে পুনরায় ১০ শতাংশ নারী কোটা চালুর জন্য দাবি তুলতে বলেছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

শনিবার (২২ মে) অনলাইন মাধ্যমে এন্টারপ্রেনারশিপ মাস্টার ক্লাসের ১১তম সেশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। মাস্টার ক্লাসের আয়োজন করে উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স (ডব্লিউই) নামে একটি সংগঠন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘উইমেন অ্যান্ড ই-কমার্স (ডব্লিউই) ২০১৭ সাল থেকে নারী উদ্যোক্তাদের সহযোগিতায় কাজ শুরু করে আজ তাদের সদস্য সংখ্যা ১১ লাখে উন্নীত হয়েছে। তারা দেশীয় পণ্য উৎপন্ন করে নিজেদের মাধ্যমে বাজারজাত করছেন। এর মাধ্যমে বিদেশে তাদের পণ্য রফতানির মাধ্যমে রেমিট্যান্স আসছে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের যে সর্বোচ্চ রিজার্ভ সেখানেও তাদের অবদান রয়েছে।’

কে এম খালিদ বলেন, ‘নারীরা এখনো অনেক ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছেন। পুরুষ শাসিত সমাজ থেকে কেন নারী কোটা বাতিল হলো আমার বুঝে আসে না, তাদের কোটা চালু রাখা যেতে পারে। এখানে আপনারা যেহেতু প্রায় শতভাগ নারী তাই নারী কোটা পুনরায় ১০ শতাংশ চালুর জন্য দাবি জানাতে পারেন।’

নাসিমা আক্তার নিশোর পরিচালনায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে দেশের প্রায় প্রতিটি জেলা থেকে ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তারা অংশ নেন।

আয়োজকরা জানান, এ মাস্টার ক্লাস থেকে নারীরা কিভাবে পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করবেন সে বিষয়ে সম্মুখ ধারণা নিতে পারছেন। এতে তাদের পণ্য উৎপাদন বৃদ্ধির পাশাপাশি রফতানির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ধারণা নিতে পারছেন।

এ মাস্টার ক্লাস থেতে একজন নারী উদ্যোক্তা জানতে পারছেন- পণ্য কিভাবে কাস্টমারের কাছে পৌঁছাতে হবে, কিভাবে ধৈর্য নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে, কাস্টমারের কাছে কিভাবে নিজের উদ্যোগকে পৌঁছে দিতে হবে।

এছাড়া সঠিকভাবে বিজনেস প্লান, বিজনেসের কলা-কৌশল, বিজনেসের লিগ্যাল ডকুমেন্টসের প্রয়োজনীয়তা ইত্যাদি বিষয়েও তারা জানতে পারছেন।