বিশ্ববাণিজ্যে বাংলাদেশের অংশীদারত্ব ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘বিশ্ববাণিজ্যে বাংলাদেশের অংশীদারত্ব ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের রফতানি পণ্যেও এসেছে বহুমাত্রিকতা। বিশ্ববাণিজ্যে নিজেদের অবস্থান সুসংহত করতে পণ্যের সঠিক পরিমাপ ও মান নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত জরুরি। এক্ষেত্রে বিএসটিআইসহ পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর ভূমিকাও ক্রমশ সম্পসারিত হচ্ছে। আন্তর্জাতিক মান সংস্থাসমূহের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে উৎপাদন থেকে শুরু করে বিপণন পর্যন্ত প্রতিটি পর্যায়ে মান নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি জনগণের স্বার্থ সংরক্ষণে সকলে সচেষ্ট থাকবে-এ প্রত্যাশা করি।’

বৃহস্পতিবার (২০ মে) ‘বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস’ ২০২১ উপলক্ষে দেয়া এক বাণীতে এ কথা বলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‌‘বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ‘বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস’ উদযাপিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। ওজন ও পরিমাপের সকল ক্ষেত্রে এর সঠিকতা নিশ্চিতকরণ ও পরিমাপ বিজ্ঞানের গুরুত্ব সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে এ দিবস উদযাপন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে করি।’

তিনি বলেন, ‘১৮৭৫ সালের ২০ মে ফ্রান্সের প্যারিসে ১৭ জাতি কর্তৃক স্বাক্ষরিত পরিমাপ সম্পর্কিত ‘মিটার কনভেনশন’-কে স্মরণীয় করে রাখতে প্রতিবছর এদিনে বিশ্বব্যাপী মেট্রোলজি দিবস পালন করা হয়। ক্রমবিকাশমান সামাজিক চাহিদা পূরণে নিত্য নতুন প্রযুক্তির উদ্ভাবন এবং তার ব্যবহারের প্রতিটি পর্যায়ে সঠিক পরিমাপের গুরুত্ব অপরিসীম। বিশেষ করে স্বাস্থ্যখাতে রোগ-ব্যাধি নির্ণয়, অণুজীব সংক্রান্ত গবেষণাসহ চিকিৎসাসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসা সামগ্রীর ব্যবহার হয়ে থাকে।’

রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘এসব যন্ত্রপাতি ও চিকিৎসার সামগ্রীর উৎপাদন ও ব্যবহারের প্রতিটি পর্যায়ে এর সর্বোত্তম মান ও সঠিক পরিমাপ নিশ্চিত করা অত্যন্ত জরুরি। এ প্রেক্ষিতে এ বছর বিশ্ব মেট্রোলজি দিবসের প্রতিপাদ্য ‘Measurement for Health’ অর্থাৎ ‘সুস্বাস্থ্যের জন্য পরিমাপ’ যথার্থ ও সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি। আমি ‘বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস’ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।’