সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে লালমনিরহাটে কয়েকটি গ্রামে ঈদ উদযাপন

মোঃ মাসুদ রানা রাশেদ: সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ৩টটি ইউনিয়নের কয়েক শতাধিক পরিবার পবিত্র ঈদ উল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৩ মে) সকাল ৯টা ৩০মিনিটের দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের মুন্সীপাড়া জামে মসজিদে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়। জামায়াতে ঈমামতি করেন মাওলানা ইমান আলী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার, সুন্দ্রহবী, কাকিনা, চাপারহাট, চন্দ্রপুর, আমিনগঞ্জ ও মুন্সীপাড়া গ্রামের প্রায় ৫শতাধিক পরিবারের মুসল্লীরা বৃহস্পতিবার (১৩ মে) পবিত্র ঈদ উল ফিতরের নামাজ আদায় করেন। প্রতি বছর সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে রোজা ও ঈদ করেন এসব গ্রামের মুসল্লিরা।

এদিকে করোনার কারণে ঈদের জামায়াত সরকারি নির্দেশনা মেনে মসজিদে নামাজ আদায় করেছেন মুসল্লীরা।

মুন্সীপাড়া জামে মসজিদের ঈমাম ইমান আলী জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে সকল মুসুল্লীরা জামায়াত আদায় করেছি।

কালীগঞ্জ উপজেলার হাড়ি শহরের মুন্সীপাড়ার ঈদগাহ মাঠের সভাপতি মাওঃ মাছুম বিল্লাহ্ জানান, সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে বিগত কয়েক বছর ধরে এই এলাকার মানুষ ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, শবে-কদর, শবে মেরাজসহ বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করে আসছেন। সেই হিসেবে আজ ঈদুল ফিতর পালন করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আরজু মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান, সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে অনেক আগে থেকে কাকিনা-তুষভান্ডার ইউনিয়নের সুন্দ্রাহবি, চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বোতলা ও পানি খাওয়ার ঘাট এলাকায় ঈদের নামাজ আদায় করে আসছে কিছু মানুষ।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও তুষভান্ডার, সুন্দ্রহবী, কাকিনা, চাপারহাট, চন্দ্রপুর, আমিনগঞ্জ ও মুন্সীপাড়া এলাকায় কিছু মানুষ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে এসব এলাকার মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন স্থানীয় মুসল্লীরা।