‘সময় এলে উত্তরসূরির নাম ঘোষণা করব’

লেখক: তানিম টিভি
প্রকাশ: ১২ মাস আগে

রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত এক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে দেশের জনগণের সঙ্গে কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ সময় নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, করোনা ভাইরাস মহামারি, বিশ্বমঞ্চে রাশিয়ার অবস্থানসহ নানা বিষয়ে দর্শকদের সরাসরি প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন তিনি। বুধবার (৩০ জুন) রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশনে তার এই ফোনইন অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

এ সময় একজনের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এমন এক সময় আসবে যখন তিনি ক্রেমলিনে তার সম্ভাব্য উত্তরসূরির নাম ঘোষণা করবেন। তবে সম্ভাব্য এই উত্তরসূরিকে শেষ পর্যন্ত ভোটাররাই বেছে নেবেন। চলতি শতাব্দীর শুরু থেকেই রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট অথবা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতায় আছেন ৬৮ বছর বয়সী পুতিন।

ক্রেমলিনে তার বর্তমান ছয় বছরের মেয়াদ ২০২৪ সালে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তবে নিজের শাসনকাল বৃদ্ধির পরিকল্পনা করছেন কি-না সে সম্পর্কে তার মন্তব্য অত্যন্ত নিবিড়ভাবে বিশ্লেষণ করা হচ্ছে।

গত বছর রাশিয়ার সংবিধানে সংশোধনী এনে আরও দুই মেয়াদে আগামী ২০৩৬ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে পুতিনকে রাশিয়ার ক্ষমতায় থাকার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সংবিধানে সংশোধনী এনে নিজের ক্ষমতার পথ দীর্ঘ করার পর বিশ্ব গণমাধ্যমে পুতিনকে ‘রাশিয়ার আজীবনের প্রেসিডেন্ট’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছিল।

রাশিয়ায় গত বছরের সেপ্টেম্বরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ২০২৪ সালের নির্বাচন যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছাড়াই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সেটি ওই নির্বাচনে পরিষ্কার হয়েছে। কারণ নির্বাচনে রুশ কর্তৃপক্ষ দেশটির বিরোধী নেতা ও ক্রেমলিনের কট্টর সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনিকে চরমপন্থি হিসেবে অভিযুক্ত করে নির্বাচনী মাঠের বাইরে ফেলে দিয়েছে।

পুতিন বলেছেন, আমি আশা করছি— এমন এক সময় আসবে যখন আমি বলতে পারবো যে, রাশিয়ার মতো চমৎকার একটি দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে একজন ব্যক্তি আমার মতে যোগ্য।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রশাসনে কাজ করতেন এমন একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক অ্যালেক্সি চেসনাকোভ। টেলিগ্রামে এক বার্তায় তিনি লিখেছেন, এটি এক ধরনের সঙ্কেত। পুতিনের একজন উত্তরসূরি থাকবেন।

সাবেক সোভিয়েত আমলের স্নায়ুযুদ্ধের সময়ের কেজিবি কর্মকর্তা পুতিন ১৯৯৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথমবারের মতো ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে রাশিয়ার ক্ষমতায় আসেন। সোভিয়েত আমল-পরবর্তী রাশিয়ার প্রথম প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন ওই সময় তার উত্তরসূরি হিসেবে পুতিনের নাম ঘোষণা করেছিলেন।

সূত্র : রয়টার্স