ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৩০ জুন ২০২২
  1. অনান্য
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. ইসলাম
  7. কিশোরগঞ্জ
  8. কুড়িগ্রাম
  9. কুমিল্লা
  10. কুষ্টিয়া
  11. কৃষি
  12. খোলা কলাম
  13. গাইবান্ধা
  14. গাজীপুর
  15. চাকরি
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মেহেরপুরের গাংনীতে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে বসবাস না করে রাখা হয়েছে গোবরের খড়ি

350
তানিম টিভি
জুন ৩০, ২০২২ ১:৪৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

হাজী সাইফুল ইসলাম মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি: একটি মাথা গোঁজার ঠাঁই অনেকের কাছেই স্বপ্ন। আর এ স্বপ্ন পূরণে গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার দরিদ্র মানুষদের ভালোভাবে বেঁচে থাকা ও মাথা গোঁজার ঠাঁই পেতে দিয়েছেন একটি করে ঘর।

একটি ঘর পাওয়া অনেকের কাছেই সোনার হরিণ পাওয়া। কিন্তু সরকারের দেওয়া বিনামূল্যের এ ঘর যদি সত্যিকারের পাওনাদার না পেয়ে, পাকা ঘর রয়েছে তেমন ব্যক্তি পেয়ে তা ব্যবহার না করে তাহলে যাদের ঘর নেই তাদের কস্ট কেমন হতে পারে?

হাইরে কপাল! কতজন ঝড়বৃষ্টি উপেক্ষা করে ছোট ছোট ছেলে মেয়ে নিয়ে কতই না কষ্ট করে থাকে। আবার অনেকেই সরকারি ঘর পেয়েও থাকেন না সেই ঘরে। অযত্নে অবহেলায় নষ্ট হয় লাখ টাকার ঘর।

এমনই কয়েকটি ঘর পাওয়া গেছে যেগুলো পেয়েও সেখানে তারা বসবাস করেন না। আর এ ঘরগুলোর সন্ধান মিলেছে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বামুন্দী ইউনিয়নের দেবীপুর গ্রামে।

জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পে সরকারি অনুদান হিসেবে ২০২১ সালে ঘর দেওয়া হয় গাংনী উপজেলার দেবীপুর গ্রামের মৃত সামাদ আলীর ছেলে বিল্লাল হোসেন ও ছহির মালিথার ছেলে সেলিম রেজাকে। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য তারা কেউ থাকেন না ওই ঘরে।

বরাদ্দকৃত ঘরের মালিক বিল্লাল হোসেন থাকেন তিনার পূর্বের পাকা বাড়িতে এবং সেলিম রেজা থাকেন তিনার ছাদের বাড়িতে। পরিত্যাক্ত ওই ঘরগুলোতে রাখা হয়েছে রান্নার কাজে ব্যবহৃত গোবরের খড়ি।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সরকারি অনুদানের ঘর সুষ্ঠু ভাবে বন্টন করা হয়নি। যাদের ঘর রয়েছে তাদেরকেই দেওয়া হয়েছে দরিদ্রদের এ ঘর। আর যাদের জন্য একটি ঘর খুব প্রয়োজন, একটি ঘর পাওয়ার স্বপ্নে যারা বিভোর হয়ে থাকেন তাদেরকেই দেওয়া হয়নি। ঘর বরাদ্দে করা হয়েছে স্বজনপ্রীতি।

এবিষয়ে বিল্লাল হোসেন না থাকায় তিনার স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পায়খানার ট্যাংকি ও টিউবওয়েল না থাকায় ঘরে উঠা হয়নি।

সরোজমিনে গিয়ে সেলিম রেজার পরিবারের কারোর সন্ধান মেলেনি।

এ বিষয়ে উপজেলার বামুন্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওবাইদুর রহমান কমল জানান, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। এই ঘরগুলো তিনি চেয়ারম্যান হবার পূর্বে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। তবে যাহারা এই ঘর বন্টনের দায়িত্বে ছিলেন তাদের অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে ঘর দেওয়া উচিৎ ছিল।

তিনি জানান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও জেলা প্রশাসক মহোদয়কে বিষয়টি সম্বন্ধে অবগত করবো তদন্ত সাপেক্ষে।

গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী খানম জানান, বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি! তানিম টিভি লি:  এর  সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য দেশের কিছু (জেলা ব্যতীত) সকল জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ ও সাহসী কিছু পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি নিয়োগ করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা পূর্ণাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত ই-মেইলে tanimtvltd.news1@gmail.com