ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে ৪৩ অভিবাসীর মৃত্যু

লেখক: তানিম টিভি
প্রকাশ: ১২ মাস আগে

লিবিয়া থেকে ইউরোপ যাওয়ার সময় তিউনিসিয়া উপকূলে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবে ৪৩ অভিবাসীর মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে বাংলাদেশিও আছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এবার উদ্ধার করা হয়েছে ৮৪ জনকে।

ডুবে যাওয়া নৌকাটিতে বাংলাদেশ ছাড়াও মিশর, সুদান ও ইরিত্রিয়া থেকে আসা অভিবাসীও ছিল বলে জানিয়েছে তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট। যদিও নৌকাটিতে কতজন বাংলাদেশি ছিল তা জানা যায়নি। খবর রয়টার্সের।

রেড ক্রিসেন্ট কর্মকর্তা মঙ্গি স্লিম বলেন, ৮৪ জন অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে নৌবাহিনী। লিবিয়ার উত্তর–পশ্চিম উপকূলের জুয়ারা থেকে নৌকায় করে অভিবাসীরা যাত্রা শুরু করেছিলেন।

আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে দারিদ্র্যের কারণে হাজার হাজার অভিবাসী সম্প্রতি ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেন। এছাড়া গ্রীষ্মের সুযোগ নিয়ে অভিবাসীরা উত্তর আফ্রিকা থেকে ইউরোপে পৌঁছানোর চেষ্টা করছে। এসব অভিবাসীর বেশিরভাগেরই গন্তব্য ইতালি। ২০২১ সালে অভিবাসীদের যাওয়ার হার আবার বেড়ে যায়।

লিবিয়া থেকে সোমবার ইতালিতে যাওয়ার সময় ভূমধ্যসাগরে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর নৌকাটি ডুবে যায়। এতে এতো মানুষের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

তিউনিসিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশটির জারজিস বন্দরের কাছ থেকে যাদের উদ্ধার করা হয়েছে সেসব অভিবাসীদের বয়স তিন বছর থেকে শুরু ৪০ বছর পর্যন্ত ছিল।

তিউনিসিয়ার রেড ক্রিসেন্ট উদ্ধার হওয়া লোকজনের খাবার এবং পানীয় জল সরবরাহ করেছে। একই সাথে তাদের কোভিড-১৯ আইসোলেশনের জন্য কোথায় রাখার ব্যবস্থা করা যায় তা নিয়েও কাজ করছেন তারা।