ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অনান্য
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. ইসলাম
  7. কিশোরগঞ্জ
  8. কুড়িগ্রাম
  9. কুমিল্লা
  10. কুষ্টিয়া
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. খোলা কলাম
  14. গাইবান্ধা
  15. গাজীপুর
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ব্যানার খোলা নিয়ে নাটোরে প্রতিমন্ত্রী ও সাংসদের বিরোধ প্রকাশ্যে-পরিস্থিতি শান্ত করলেন পুলিশ

350
তানিম টিভি
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২ ৫:৫২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ আগামী রবিবার ২০ ফেব্রুয়ারী নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে লাগানো ব্যানার খোলাকে কেন্দ্রকরে প্রতিমন্ত্রী ও সাংসদের বিরোধ প্রকাশ্যে এসেছে। নাটোর-৩ (সিংড়া) আসনের সাংসদ এবং তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এবং নাটোর-২ (সদর-নলডাঙ্গা) আসনের সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম এর ব্যানার লাগানো ও খোলা নিয়ে বিরোধ দেখা দিয়েছে দু’পক্ষের নেতা-কর্মীদের মাঝে।
বিশেষকরে গতকাল বুধবার ১৬ ফেব্রুয়ারী সকালে নাটোর শহরের কানাইখালি এলাকায় নাটোর প্রেসক্লাবের ছাদের উপর  বিলবোর্ডে থাকা প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদের একটি ব্যানার খোলার ভিডিও সোস্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পরলে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদের কর্মী-সমর্থকেরা সরাসরি শফিকুল ইসলামকে দায়ী করেন এবং দু’ পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখাদিলে খোলার অল্প সময়ের মধ্যেই দুপুর ১২টারদিকে প্রতিমন্ত্রীর ব্যানারটি আবার সেই স্থানে টানানো হয়।

আগামী রবিবার ২০ ফেব্রুয়ারি শংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে ঘিরে বিলবোর্ড আর ব্যানার স্থাপনের প্রতিযোগিতায় নেমেছেন স্থানীয় রাজনীতিবিদদের সমর্থক সহ নেতা-কর্মীরা।
ইতিমধ্যেই ব্যানার-পোস্টারে শহর ছেয়ে গেছে শহরের গরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো।
নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সামনে রবিবার সম্মেলন উপলক্ষ্যে নাটোর প্রেস ক্লাবের ছাদের উপর একটি বিলবোর্ডে জুনাইদ আহমেদ পলক এর একটি ব্যানার টানানো হয়েছিলো। গতকাল বুধবার সকাল ১১টার দিকে দু’জন যুবক ঐ বিলবোর্ড থেকে প্রতিমন্ত্রীর ব্যানারটি খুলে ফেলেন। এসময় ব্যানার খোলার দৃশ্যটি ভিডিও করেন আওয়ামী লীগের এক নেতা। যে ভিডিওটি সোস্যাল মিডিয়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা হলে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এরপর আওয়ামী লীগের এক পক্ষের শতাধিক নেতাকর্মী সেখানে ছুটে আসেন এবং বিক্ষোভ মিছিল করার উদ্যোগ নেয় এসময় পুলিশের দ্রুত আশুপদক্ষেপে অল্প সময় ব্যবধানে দুপুর ১২টারদিকে আবারও ব্যানারটি ঐ বিলবোর্ডে সাঁটানো হয়। এরপরও ঘটনাস্থলে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে সেখানে আসেন সাংসদ শফিকুল ইসলাম। তিনি উপস্থিত নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, প্রতিমন্ত্রীর ব্যানার খোলা যাবে না। প্রয়োজন হলে তাঁর ব্যানার খুলে প্রতিমন্ত্রীর ব্যানার লাগাতে হবে।

নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সংবাদকর্মীকে জানান, সাংসদ শফিকুরের ঘনিষ্ঠ হিসাবে পরিচিত জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাশিরুর রহমান খানের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কর্মীরা ঐ ব্যানারটি খুলেছিলেন। বিলবোর্ডের ভাড়া পরিশোধ করে ব্যানারটি সাঁটানো হয়েছিল। ব্যানারটি খোলার এখতিয়ার কারো নেই। মূলত প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক কে অপমানিত করার জন্য ব্যানারটি খোলা হয়েছিলো বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
তবে যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বাশিরুর রহমান খান এমন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। সোস্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি সাজানো দাবি করে তিনি বলেন, সম্মেলনের আগে অস্থীতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির জন্য অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
সাংসদ শফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করার জন্য সাজানো ভিডিও ছড়িয়ে প্রতিমন্ত্রীর ব্যানার খুলে নেওয়ার মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে একটি মহল। তবে সেই মহল কারা সেটি তিনি বলেননি।এব্যাপারে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানার নামানোর ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। আইসিটি ডিভিশন চুক্তি ও ভাড়া পরিশোধ করেই ব্যানার স্থাপন করা হয়েছে। সেখানে গায়ের জোরে ঐ ব্যানার নামিয়ে তিনি অপরাধ করেছেন। জেলা আওয়ামী লীগ এ ঘটনার জন্য যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির কাছে কৈফিয়ত চেয়ে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবে বলেও আশা করেন প্রতিমন্ত্রী।

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি! তানিম টিভি লি:  এর  সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য দেশের কিছু (জেলা ব্যতীত) সকল জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ ও সাহসী কিছু পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি নিয়োগ করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা পূর্ণাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত ই-মেইলে tanimtvltd.news1@gmail.com