ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অনান্য
  2. অর্থ ও বাণিজ্য
  3. অর্থনীতি
  4. আইন-আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. ইসলাম
  7. কিশোরগঞ্জ
  8. কুড়িগ্রাম
  9. কুমিল্লা
  10. কুষ্টিয়া
  11. কৃষি
  12. খেলাধুলা
  13. খোলা কলাম
  14. গাইবান্ধা
  15. গাজীপুর
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কৃষিতে জনপ্রতি বিনিয়োগ মাত্র ১৬ ডলার

350
Tanim Tv
ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২২ ৬:৫৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের মোট শ্রমমক্তির ৪০ শতাংশের বেশি কৃষি খাতে নিয়োজিত। তবে সে তুলনায় খাতটিতে জনপ্রতি বিনিয়োগ ও মূল্য সংযোজনের পরিমাণ খুবই কম। বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে তুলনা করলে এ পার্থক্য কতটা প্রকট সেটা স্পষ্ট হয়। বর্তমানে দেশে কৃষিতে জনপ্রতি বিনিয়োগ মাত্র ১৬ ডলার। অন্যদিকে মূল্য সংযোজন ১ হাজার ৩৭ ডলার, যা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর জনপ্রতি গড় মূল্য সংযোজনের চেয়েও কম। জাতিসংঘের কৃষি ও খাদ্য সংস্থার (এফএও) ‘এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জন্য এফএও আঞ্চলিক সম্মেলনের ৩৬তম অধিবেশনের জন্য নাগরিক সমাজের সংস্থাগুলোর সঙ্গে পরামর্শ’ শীর্ষক গবেষণা নিবন্ধে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

গবেষণাটিতে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের বর্তমান অবস্থা তুলনা করা হয়েছে। সেখানে বলা হয়, নেদারল্যান্ডসে কৃষিতে জনপ্রতি মূল্য সংযোজন ৮০ হাজার ৭৭৯ ডলার। এছাড়া তুরস্কে জনপ্রতি মূল্য সংযোজন ১৫ হাজার ৪৯৩ ডলার, মধ্যম আয়ের দেশগুলোয় ৩ হাজার ৩৬২, থাইল্যান্ডে ৩ হাজার ৩২৪, নিম্নমধ্যম আয়ের দেশগুলোয় ২ হাজার ৪০৮, ভারতে ১ হাজার ৯৯২, দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোয় ১ হাজার ৮৪০ ও রাজনৈতিক অস্থিরতাসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত মিয়ানমারে ১ হাজার ৮২০ ডলার। অন্যদিকে বাংলাদেশে কৃষিতে জনপ্রতি মূল্য সংযোজনের পরিমাণ মাত্র ১ হাজার ৩৭ ডলার।

কৃষিতে নেদারল্যান্ডসে জনপ্রতি বিনিয়োগ ৩১৩ দশমিক ৮ ডলার বলে গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে। অন্যান্য দেশের মধ্যে তুরস্কে কৃষিতে জনপ্রতি বিনিয়োগ ১৬০ দশমিক ৯ ডলার, পোল্যান্ডে ১১১, দক্ষিণ কোরিয়ায় ৯১ দশমিক ৩, উজবেকিস্তানে ৪৩ দশমিক ৭ ডলার। এছাড়া থাইল্যান্ডে ৪৩ দশমিক ৫ ডলার, ভারতে ৩৪ দশমিক ৪ ও মিয়ানমারে ২৬ দশমিক ৬ ডলার।

এসবের বিপরীতে বাংলাদেশে এ বিনিয়োগের পরিমাণ মাত্র ১৬ দশমিক ৪ ডলার। গবেষণার তথ্য থেকেই বোঝা যায়, জনপ্রতি মূল্য সংযোজন ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এসব দেশের তুলনায় বেশ পিছিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ।

বিশ্লেষকরা বলছেন, কৃষি খাতে নতুন নতুন প্রতিবন্ধকতা আসছে। ভবিষ্যতে মানুষের খাদ্য চাহিদা হবে বহুমুখী। বাড়বে পুষ্টিকর খাবারের চাহিদা। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলার পাশাপাশি মুখোমুখি হতে হবে বিপণন ব্যবস্থায় নানা ধরনের প্রতিবন্ধকতার। এজন্য আগামীতে স্বল্প জমিতে অধিক ও বহুমুখী ফসল উৎপাদন করতে হবে। নতুন নতুন জাত উদ্ভাবন করতে হবে। এসব জাত যেন দ্রুত কৃষকের মাঝে পৌঁছায়, সে লক্ষ্যে কাজ করতে হবে। উৎপাদন ব্যবস্থাপনা বিশেষ করে সার, সেচ ও কীটপতঙ্গ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনায় নতুন প্রযুক্তির সম্প্রসারণ করতে হবে। এজন্য গবেষণা বাড়াতে হবে, সার্বিক কৃষি খাতে বিনিয়োগ করতে হবে। এছাড়া কৃষিতে দ্রুত প্রযুক্তির বিকাশ ঘটাতে হবে। পাশাপাশি টেকসই কৃষির জন্য মৌলিক সমস্যাগুলো দূর করতে হবে। বিশেষ করে খাদ্য চাহিদা নির্ধারণের জন্য জনসংখ্যার প্রকৃত তথ্য প্রকাশ করা প্রয়োজন। তা না হলে ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করা বাংলাদেশের জন্য ভীষণ কঠিন হয়ে পড়বে।

গেইন বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. রুদাবা খন্দকার বলেন, কৃষি ও শস্যের উৎপাদনের তথ্য বিষয়ে সরকারের দুটি সংস্থা বিশেষ করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর আরো সমন্বয় প্রয়োজন। পাশাপাশি অপরিকল্পিত শস্য উৎপাদন করতে গিয়ে কৃষকের স্বাস্থ্য, মাটি ও পানির স্বাস্থ্য কীভাবে নষ্ট হচ্ছে সেটি নিয়ে এখনই নীতি কাঠামো গঠন জরুরি। এ অবস্থায় বিনিয়োগ বাড়ানোর কোনো বিকল্প নেই। অন্যদিকে কৃষি খাতের মাধ্যমে মূল্য সংযোজন বাড়াতে হলে অবশ্যই সরবরাহ চেইন উন্নয়নে জোর দিতে হবে। দেশের উন্নত বাজার অবকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি বাজার সংযোগ ও মূল্য সংযোজন বাড়ানোর জন্য নীতি সহায়তা বাড়ানো প্রয়োজন।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষিবিষয়ক সংস্থার রিপোর্ট অন স্টেট অব ফুড অ্যান্ড এগ্রিকালচার (এসওএফআই) ২০২১ অনুসারে, বাংলাদেশে জনসংখ্যার ৭৩ শতাংশই স্বাস্থ্যকর খাদ্য কিনতে সক্ষম নয়। এছাড়া জনসংখ্যার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ ৩১ দশমিক ৯ শতাংশ মানুষ মাঝারি বা গুরুতর খাদ্য নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে (এসওএফআই-২০২১)।

এ অবস্থায় দেশের সার্বিক খাদ্য অপচয় পরিস্থিতি, দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসরত মানুষ, আয় বৈষম্যসহ বিভিন্ন বিষয়কে সামনে রেখে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ অবস্থায় কৃষি খাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর বিকল্প নেই। পাশাপাশি কৃষির মাধ্যমে উৎপাদিত পণ্যের মূল্য সংযোজন বাড়ানোর মাধ্যমেই দেশের মানুষের আর্থিক উন্নয়ন সম্ভব। জাতিসংঘের কৃষি ও খাদ্য সংস্থার প্রতিবেদনেও এ পরামর্শের কথাই উঠে এসেছে।

সাংবাদিক নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি! তানিম টিভি লি:  এর  সংবাদ সংগ্রহ করার জন্য দেশের কিছু (জেলা ব্যতীত) সকল জেলা-উপজেলা পর্যায়ে কর্মঠ, সৎ ও সাহসী কিছু পুরুষ ও মহিলা সংবাদদাতা/প্রতিনিধি নিয়োগ করা হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা পূর্ণাঙ্গ জীবন বৃত্তান্ত ই-মেইলে tanimtvltd.news1@gmail.com